1. dipanchalbarguna@gmail.com : dipanchalAd :
বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল ময়লার ভাগাড়ে ভাসছে - dipanchalnews
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০২:৫২ অপরাহ্ন

বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল ময়লার ভাগাড়ে ভাসছে

  • আপলোডের সময় : শুক্রবার, ২২ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭৮ বার নিউজটি দেখা হয়েছে

এম.এস রিয়াদ : পুরাতন সেই বরগুনা সদর হাসপাতালটি এখন কেবল ১০০ তে আটকে নয়, হয়েছে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট। পাশেই রয়েছে নার্সিং ইনস্টিটিউট। তবে হাসপাতালটি নানা সমস্যায় জর্জরিত। চিকিৎসক—নার্স সহ দাপ্তরিক কাজে সংশ্লিষ্ট অধিকাংশ পদই শূন্য রয়েছে। ডোম ঘরটি হাসপাতালের একটি নির্দিষ্ট স্থানে হওয়ার কথা থাকলেও লাস কাটার এ ঘরটি নার্সিং ইনস্টিটিউটের প্রধান ফটকে। হাসপাতাল ও নার্সিং ইনস্টিটিউটের মাঝখানের রাস্তা যেন ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়ে আছে। এতে দুর্গন্ধের কারণে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগী ও নার্সিং ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। হাসপাতালের ময়লা আবর্জনা ফেলতে নামেমাত্র একটি ডাস্টবিন তৈরি করা হলেও এতে পরিমানের তুলনায় অতি সামান্য ময়লা আবর্জনা রাখা যায়। সেভটি ডাস্টবিন না হওয়ায় কুকুর ময়লা গুলোকে টেনে টেনে চলার পথে নিয়ে আসছে। ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা আবর্জনার সাথে পুষ করা সুচ রাস্তার উপরে ভয়ানক অবস্থায় পড়ে থাকছে। এতে করে নার্সিং ইনস্টিটিউট এর শিক্ষার্থী কিংবা ডোমে আসা সাধারণ মানুষের পায়ে যেকোন মুহুর্তে সুচ ফুটতে পারে। ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ময়লা আবর্জনা থেকে অতি সহজেই দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে হাসপাতাল ও নার্সিং ইনস্টিটিউটে। এতে যেমন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় থাকা রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিতে কষ্ট হচ্ছে, তেমনি ক্লাস করতে কষ্ট হচ্ছে ইনস্টিটিউটে থাকা নার্সিং শিক্ষার্থীদের।

বরগুনা সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার মোঃ সোহরাব হোসেন জানান— ময়লা আবর্জনা ফেলতে আধুনিক ডাস্টবিন স্থাপনে নকশা করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে পাঠানো হয়েছে। মাসিক সভার মাধ্যমে বারবার জ্ঞাত করলেও এর কোন সূরহা এখনো মেলেনি। তবে আপাতত এ সমস্যা সমাধানে আমি নিজে বরগুনা পৌর কর্তৃপক্ষকে বহুবার তাগিদ দিয়েছি। কিন্তু তারা কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। এ ব্যাপারে বরগুনা পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট মোঃ কামরুল আহসান মহারাজ বলেন— বিষয়টি আমার জানা ছিল না। পৌরসভার পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুণ :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর :
© All rights reserved © 2020 The Daily Dipanchal
Customized By BlogTheme