1. dipanchalbarguna@gmail.com : dipanchalAd :
বরগুনায় সবজির বাজারে আগুন বিপাকে সাধারণ ক্রেতারা - dipanchalnews
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ :
দক্ষিণাঞ্চলের স্বপ্নের দুয়ার খুলছে আজ হাইকোর্টে দুই মামলায় খালেদা জিয়ার স্থায়ী জামিন টাঙ্গাইলে নানা কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে বিশ্ব পরিবেশ দিবস উদযাপিত- বরগুনায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে হজ্জ বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত মঠবাড়িয়ায় হাত-পা বেঁধে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা, বৃদ্ধ গ্রেপ্তার টাংগাইলে জাতীয় শিশু কিশোর ইসলামী সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান- বরগুনায় ইসলামি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দুঃস্থদের মাঝে সরকারি যাকাত ফান্ডের চেক বিতরণ জেলায় শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ নির্বাচিত মাওঃ মুহাম্মদ ইউনুস আলী বরগুনায় কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত “প্রত্যাবর্তনের চার দশক,শেখ হাসিনার বদলে দেওয়া বাংলাদেশের,অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রা”

বরগুনায় সবজির বাজারে আগুন বিপাকে সাধারণ ক্রেতারা

  • আপলোডের সময় : শুক্রবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২১
  • ৬৬ বার নিউজটি দেখা হয়েছে

আসাদুল হক সবুজ : সপ্তাহের ব্যবধানে বরগুনার সবজির বাজারে যেন রীতিমতো আগুন জ্বলছে। লাগামহীন ভাবেই দাম বাড়ছে প্রায় সকল প্রকার কাচা শাক সবজির। “কাঁচা মরিচ” সে তো সপ্তাহ ক্ষানেক ধরেই ডাবল সেঞ্চুরি হাকিয়ে চলছেন।” টমেটো” তিনিও কিন্তু কম যান না, তারও স্ট্রাইক রেট ১২০ থেকে ১৩০। সবজি বাজারে দ্রব্য মূল্যের অস্বাভাবিক উর্দ্ধগতির করনে চরম বিপাকে পড়েছেন সাধারণ ক্রেতারা। আগাম শীতকালীন শাক—সবজি বাজারে আসলেও দাম কমছে না কোন সবজির।

বরগুনায় সবজি বাজারের দ্রব্য মূল্যের উর্দ্ধগতি চরম প্রভাব ফেলেছে নিম্ন ও মধ্যবিত্তদের উপর। বাজারে সবজি কেনাকাটা করতে গিয়ে যেন হিমসিম খাচ্ছেন তারা। শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) সবজি বাজারে কেনাকাটা করতে আসা জুয়েল নামের একজন ক্রেতা বলেন, বাজারে প্রায় সকল প্রকার কাচা শাক সবজির দাম বাড়তি। যতটুকু রোজগার করি, সবজির দাম এভাবে থাকলে তাতে মনেহয় সপ্তাহে দু একদিন সবজি কিনে ক্ষেতে পারবো।

ছগির হোসেন নামের আরেকজন ক্রেতা বলেন, গত সপ্তাহেও কাঁচা মরিচ ১৫০ টাকা ছিল, আজ দেখি ২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দাম বৃদ্ধির কারনে না কিনেই চলে আসলাম। শুধু কাঁচা মরিচই না সকল সবজিতে দাম বৃদ্ধি। বাজারে সবজি কেনাকাটা করতে আসা আরো কয়েকজন ক্রেতা বলেন, গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে প্রায় সকল সবজির কেজিতে ২০ থেকে ৩০ টাকা দাম বৃদ্ধি, আবার অনেক অনেক সবজির কেজিতে ৫০টাকাও বৃদ্ধি পেয়েছে।

বরগুনা সবজির বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি ঝিঙা, চিচিঙ্গা, ধুন্দল বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকায়, কচুর লতি ৬০ থেকে ৭০ টাকা, টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৩০ টাকায়, কাকরোল আকার ভেদে ৪০ থেকে ৫৫ টাকায়, বরবটি ৭০ থেকে ৮০ টাকায়, কচুর ছড়া ৭০ থেকে ৮০ টাকা, ঢেঁড়স প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকায়, পটল ৪৫ টাকা, পেঁপে ৫০ টাকা, দেশি শসা ৭০ টাকা, পাতাকপি ৬০টাকা, সিম ১০০ থেকে ১২০ টাকা, মুলা ৬০ টাকা, ফুল কপি ১০০ টাকা, আমড়া ৪০ টাকা, হাইব্রিড শসা ৭৫ টাকায় কেজি বিক্রি করা হচ্ছে। বরগুনা পৌর শহরের কয়েকজন শাক — সবজি পাইকারদের সাথে কথা হলে তারা বলেন, এক শ্রেণীর অসাধু মৌসুমি সবজি ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে মোকামে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে সবজির দাম বৃদ্ধি করে বিক্রয় করে। সবজি সংকটের কারনেই মোকামে সবজির দাম বাড়তি রাখা হচ্ছে। ফলে এর প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারেও।

বরগুনা সদর উপজেলা কৃষি সম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হাসান প্রতিবেদককে বলেন, জেলার শাক—সবজির দাম বৃদ্ধি একটা রীতিতে পরিণত হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুণ :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর :
© All rights reserved © 2020 The Daily Dipanchal
Customized By BlogTheme