1. dipanchalbarguna@gmail.com : dipanchalAd :
বেতাগী পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ অর্ধ ডজন, জাপা একক এবং বিএনপি’র ৪ সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মাঠে নেমেছেন - dipanchalnews
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৫০ অপরাহ্ন

বেতাগী পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ অর্ধ ডজন, জাপা একক এবং বিএনপি’র ৪ সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মাঠে নেমেছেন

  • আপলোডের সময় : বৃহস্পতিবার, ৫ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৪৬ বার নিউজটি দেখা হয়েছে

স্বপন কুমার ঢালী, বেতাগী (বরগুনা) : ডিসেম্বর মাসে বরগুনার বেতাগী পৌরসভা নির্বাচন। নিয়মানুযায়ী এ বছরের ডিসেম্বর মাসে পৌরসভার মেয়াদ শেষ হবে। সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীরা ইতোমধ্যে দলীয় পর্যায়ে এবং ভোটারদের সাথে কুশল বিনিময় করছেন।
নির্বাচন কমিশনসূত্রে জানা গেছে , গত ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর বেতাগী পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এবং ১৫ জানুয়ারি ২০২০ খ্রি তারিখ শপথ গ্রহণ করেন। এ বছরের ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে বরিশাল বিভাগের মেয়াদোর্ত্তীন পৌরসভাগুলোর নির্বাচন হতে যাচ্ছে এবং এর মধ্যে বরগুনার বেতাগী পৌরসভার নির্বাচনও হতে যাচ্ছে । এ নভেম্বর মাসে তফশিল ঘোষণা হতে যাচ্ছে। ৪০ থেকে ৪৫ দিন সময় হাতে রেখে- এসব পৌরসভা নির্বাচনের তফশিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন। এ বছরও দলীয় প্রতীকে পৌরসভা নির্বাচন হতে যাচ্ছে।
নির্বাচন কমিশন (ইসি) থেকে জানা গেছে ধাপে ধাপে পৌরসভা নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রথম ধাপে ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ কয়েকটি পৌরসভা নির্বাচন। শেষ হবে মে মাসে। ভোট গ্রহণ হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)। প্রধান নির্বাচন কমিষনার (সিইসি) কে এম ননুরুল হুদা গত সোমবার (২ নভেম্বর) কমিশনের ৭২ তম সভা শেষে এসব সিদ্ধান্তের কথা সাংবাাদিকদের জানান। বরগুনার বেতাগী পৌরসভার নির্বাচনে ইতোমধ্যে সম্ভাব্য প্রার্থীরা তোড়জোড় শুরু করেছেন। সম্ভাব্য মেয়র, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা করোনা পরিস্থিতির কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ভোটারদের সাথে কুশল বিনিময় এবং খোঁজ খবর নিচ্ছেন। পৌর শহরের চায়ের দোকানগুলোতে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে নির্বাচণী আলোচনা চলছে। মহামারি করোনাকালীন সময় কেহ কেহ বাড়ি বাড়ি গিয়ে ত্রান বিতরণ করছেন। পৌরসভা নির্বাচন অংশ নিতে ইচ্ছুক মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা করোনার সময় খাদ্য সামগ্রী হিসেবে চাল, ডাল. আলু, তেল , পেয়াঁজ ও রসুন এবং সাবান ও হ্যান্ড স্যানিটাজার বিতরণ করতে দেখা গেছে। তবে করোনার কারণে সম্ভাব্য প্রার্থীরা ভোটারদের সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেইসবুক ও মোবাইল ফোনে খোঁজ খবর নিতে দেখা যায়।
আসন্ন বেতাগী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ থেকে ৫ জন, বিএনপি থেকে ৪ জন এবং জাতীয় পাটি থেকে ১ জন দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আওয়ামী লীগ থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বর্তমান পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব এবিএম গোলাম কবির, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, নব্বইয়ের এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক ও পৌরসভার দুইবার প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব হাদিছুর রহমান পান্না , উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য, বরগুনা জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক অর্থ সম্পাদক, জেলা পরিষদের সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান মো. নাহিদ মাহমুদ হোসেন লিটু , সাবেক ইউপি সদস্য ও উপজেলা কৃষক লীগ সভাপতি এবং বর্তমানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. আব্দুস সোবাহান হাওলাদার , সাবেক উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি এবং উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মশিউর রহমান পাভেল এবং অপর সম্ভাব্য প্রার্থী হলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও বর্তমানে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাহমুদুল হাসান মহসিন। দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশায় আওয়ামী লীগ থেকে সম্ভাব্য এ সকল সম্ভাব্য প্রার্থীই কেন্দ্রীয় পর্যায়ের নেতাদের সাথে জোড় তদবির করছেন।
বিএনপি থেকে জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌরসভার মেয়র মো. শাহজাহান কবির এবং বেতাগী পৌর বিএনপি’র আহবায়ক ও সাবেক প্যানেল মেয়র মো. হুমায়ুন কবির মল্লিক, জেলা বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও থানা বিএনপি’র আহবায়ক মো. জাহাঙ্গীর আলম লাভলু , বিএনপি থেকে অপর সম্ভাব্য প্রার্থী হলেন সাবেক উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও বেতাগী সদর ইউনিয়নের সভাপতি এস এম নূরুল ইসলাম পান্না। দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশায় বিএনপি থেকে এসব সম্ভাব্য প্রার্থী দলের কেন্দ্রীয় পর্যায়ের নেতাদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করছেন এবং কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে যার যার অবস্থান তুলে ধরছেন।
শুধুমাত্র একক সম্ভাব্য মেয়র পদে প্রার্থী হিসেবে উপজেলা জাতীয় পাটির সভাপতি মো. নাসির উদ্দিন পিযুস দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার চেষ্টা করছেন।
এছাড়া আরো কিছু স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারে এমন সম্ভাবনা রয়েছে।

আওয়ামী লীগ থেকে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও বর্তমান পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব এবিএম গোলাম কবির, তিনি পৌরসভায় ব্যাপক উন্নয়নের কাজ করেছেন বলে দাবী করে তিনি বলেন,‘ বেতাগী পৌরসভাকে তৃতীয় শ্রেণি থেকে দ্বিতীয় শ্রেণি এবং দ্বিতীয় শ্রেণি থেকে প্রথম শ্রেণিতে রুপান্তর করেন। গত নির্বাচনের ইশতেহারের প্রায় আমি ৮০ শতাংশ কাজ করেছি। বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্য, বঙ্গবন্ধ পৌর অডিটোরিয়াম, অত্যাধুনিক ডাক বাংলো, পৌরসভার সকল রাস্তাঘাট, ফায়ার সার্ভিস, কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারসহ ব্যাপক উন্নয়নের কাজ করছি।’ তিনি আরো বলেন, দল ও জনগণ যদি সুযোগ দেয় তবে আমি অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করব।’
পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, নব্বইয়ের এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক ও পৌরসভার দুইবার প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব হাদিছুর রহমান পান্না বলেন, ‘ আমার জনগনের প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে। আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী । মেয়র নির্বাচিত হলে সকলের সহযোগিতা নিয়ে বেতাগী পৌরসভাকে মডেল ও আধুনিক পৌরসভা করা হবে।’

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুণ :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর :
© All rights reserved © 2020 The Daily Dipanchal
Customized By BlogTheme