1. dipanchalbarguna@gmail.com : dipanchalAd :
না ফেরার দেশে চলে গেলেন সাংবাদিক সোহেল হাফিজের বাবা - dipanchalnews
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:৪০ অপরাহ্ন

না ফেরার দেশে চলে গেলেন সাংবাদিক সোহেল হাফিজের বাবা

  • আপলোডের সময় : সোমবার, ৩১ আগস্ট, ২০২০
  • ২১৮ বার নিউজটি দেখা হয়েছে

স্বপন কুমার ঢালীঃ দৈনিক কালের কণ্ঠের বরগুনা প্রতিনিধি ও এনটিভির স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বরগুনা জেলা টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি, বরগুনা প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য সোহেল হাফিজের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোস্তাফিজুর রহমান ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি অইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

আজ সোমবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। মৃত্যুকালে তিনি এক ছেলে, দুই মেয়ে চার নাতী-নাতনী এবং স্ত্রীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
দৈনিক কালের কণ্ঠের বরগুনা প্রতিনিধি সোহেল হাফিজ তার নিজের ফেসবুকে এক আবেগী স্ট্যাটাস দেওয়ার ২০ ঘণ্টা হতে না হতেই খেয়ালী বিধির রহস্যময় কারাগার থেকে চিরবিদায় নিলেন তার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান বাচ্চু মিয়া (৭০)। তিনি করোনা দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন শেষে গত ১৫ আগস্ট তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ হলে পরের দিন ১৬ আগস্ট তাকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করানো হয়। গত ১৩ আগস্ট সাংবাদিক সোহেল হাফিজের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ হয়। ফলে দুই বাবা ছেলে একই ইউনিটে ভর্তি হন।

অসুস্থ বাবাকে দিনরাত করোনা ইউনিটের নির্জন কক্ষে তিনি সেবা যত্ন করে সুস্থ করার চেষ্টা চালান। অবশেষে আজ রাতে তার বাবা করোনার সাথে ১৩ দিন যুদ্ধ করে পরাজিত হন।

আজ সোমবার রাত ১২ টায় তার নামাজে জানাযা বরগুনা ঈদগাহ মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। পরে তাকে বরগুনা পৌরসভার মুক্তিযোদ্ধা ও বুদ্ধিজীবী কবরে দাফন করা হবে বলে জানিয়েছেন সোহেল হাফিজের সহকর্মীরা।
এদিকে মুক্তিযোদ্ধা মো. মোস্তাফিজুর রহমানের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন বরগুনা জেলা প্রশাসন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা আইনজীবী সমিতি, বরগুনা প্রেস ক্লাব, জেলা টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরাম, জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন এবং বরগুনা পৌরসভা।

মুক্তিযোদ্ধা মো. মোস্তাফিজুর রহমান (ভূমি) সহকারী কর্মকর্তা থেকে ২০১৫ সালে অবসর গ্রহণ করেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি নানাবিধ জটিল রোগে আক্রান্ত ছিলেন।

এ বিষয়ে বরগুনার জেলা প্রশাসক মো. মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, সাংবাদিক সোহেল হাফিজের বাবা মুক্তিযোদ্ধা মো. মোস্তাফিজুর রহমান অত্যন্ত বিনয়ী, শান্ত এবং ভালো মানুষ ছিলেন। আমরা তার রুহের মাগফিরাত কামনা করি। আল্লাহ তাকে বেহেস্ত নসিব করুন, এই দোয়া করি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুণ :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর :
© All rights reserved © 2020 The Daily Dipanchal
Customized By BlogTheme