1. dipanchalbarguna@gmail.com : dipanchalAd :
মোবাইল ফোন ব্যবহারে যে আদব মেনে চলা খুবই জরুরি - dipanchalnews
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:২৫ অপরাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ :
দেড় বছর কারাগারে সাংবাদিক জামাল, অনাহারে পরিবার বরগুনা থানা পুলিশের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ অস্বীকার সরকারী নীতি নির্দেশনা বিষয়ক ২ দিনের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত বরগুনা শহরে আবারো প্রতারক চক্রের খপ্পরে ভদ্রমহিলা প্রতারক গ্রেফতার বরগুনা প্রেসক্লাবের সামনে থেকে চেতনানাশক স্প্রে দিয়ে নারীর ব্যাগ ছিনতাই বিদ্যালয় এখন প্রধান শিক্ষকের বাসভবন বরগুনার বিসিক শিল্প নগরীতে কড়া নজরদারি চায় দর্শনার্থীরা বরগুনায় ফেইসবুকে ধর্ষকের সাফাই গাইলেন জেলা ছাত্রলীগ নেতা বরিশাল রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ হওয়ায় কে.এম. তারিকুল ইসলাম কে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বরগুনা সদর থানা পুলিশ বরিশাল রেঞ্জের আবার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ কে.এম. তারিকুল ইসলাম কে সম্মাননা প্রদান

মোবাইল ফোন ব্যবহারে যে আদব মেনে চলা খুবই জরুরি

  • আপলোডের সময় : বুধবার, ৮ জুলাই, ২০২০
  • ৩০৩ বার নিউজটি দেখা হয়েছে

হাফেজ মুফতি জাহিদুল ইসলাম (বেলাল): করোনা পরিস্থিতীতে স্কুল,কলেজ,মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় সকলেই অনলাইন ক্লাস চালু করেছে , এ অবস্থায় মোবাইলফোন ছাড়া উপায় নাই বর্তমান সময়ে যোগাযোগ রক্ষা করার অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে মোবাইল ফোন। তারবিহীন এ ফোন এখন মানুষের হাতে হাতে। পারস্পরিক যোগাযোগ, ব্যবসা-বাণিজ্য, কেনাকাটা, পড়ালেখাসহ বিভিন্ন তথ্য মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই আদান-প্রদান করা হয়। ধর্মীয় ও নৈতিক দৃষ্টিকোন থেকে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর জন্য রয়েছে বেশ কিছু নিওম-কানুন। যা মেনে চলা আবশ্য।
* হ্যালো না বলে সালাম দেওয়া
ফোন রিসিভ করা বা কল দেয়ার সময় হ্যালো না বলে সালাম বিনিময় করা কারন হাদিস শরিফে রয়েছে প্রথমে সালাম তার পরে (কালাম) কথা, আর সালামের বিনিময় নেকিও পাওয়া যাবে
* পরিচয় দেওয়া
মোবাইল ফোনের কল রিসিভ করে সালাম বিনিময়ের পর পরিচয় দেয়া। মোবাইল ফোনে কথা উভয় ব্যক্তি সঠিক কিনা তা যাচাই করে নেয়া। অতঃপর প্রয়োজনীয় কথা বলা উত্তম। নাম-পরিচয়বিহীন লোকের সঙ্গে জরুরি কথা বলায় ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে যেতে পারে।

* নামাজে একাগ্রতার বিঘ্ন না ঘটানো
নামাজের জামাআত নির্ধারিত সময় হওয়ায় এ সময়টিতে মোবাইল ফোনে কাউকে কল না দেওয়া। জামাআতের সময় কোনো কল আসলে তা নামাজির একাগ্রতায় মারাত্মক বিঘ্ন ঘটায়। তারপাশে থাকা ব্যক্তির মনোযোগেও বিঘ্ন ঘটে। নামাজে মানুষের একাগ্রতাই মূল ইবাদত।

* ঘুমের সময় ফোন না দেয়া
স্বাভাবিকভাবে ঘুমের সময় কাউকে ফোন না দেয়াই উত্তম। মুমিনের ঘুমও ইবাদত। এমন অনেক মানুষ আছেন যাদের ঘুম ভেঙে গেলে আর ঘুম আসে না। তাই একান্ত প্রয়োজন বা বিপদ-আপদ না হলে ঘুমের স্বাভাবিক সময়ে ফোন না দেয়া।

* বিরতিহীন কল না দেয়া
কাউকে কল দেয়ার পর রিসিভ না হলে কিংবা ম্যাসেজ পাঠালে কোনো রিপ্লাই বা উত্তর না পেলে কিছু সময় অপেক্ষা করা। কল রিসিভ না হলে কিংবা সঙ্গে সঙ্গে উত্তর না পেলে লাগাতার কল কিংবা ম্যাসেজ করাও অনুচিত। কারণ যাকে কল বা ম্যাসেজ দেয়া হয়, সে ব্যক্তি যদি কোনো গুরুত্বপূর্ণ কাজে ব্যস্ত থাকে তবে এ কল ও ম্যাসেজ ওই ব্যক্তির গুরুত্বপূর্ণ কাজে বাধা সৃস্টি করে।

* যে সময় সংযোগ বিচ্ছিন করা ঠিক নয়
মোবাইলে কথা শেষ করার পর একে অপরকে সালাম দেয়। অনেকেই সালামের উত্তর শোনার আগেই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। এমনটি ঠিক নয়, কেননা সালাম দেয়া সুন্নাত আর উত্তর শুনিয়ে দেয়া ওয়াজিব। তাই সালাম দিয়েই কল না কেটে দিয়ে সালামের উত্তর শুনে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা।
লেখকঃ সাংবাদিক ও ইসলামিক গবেসক

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুণ :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর :
© All rights reserved © 2020 The Daily Dipanchal
Customized By BlogTheme