1. dipanchalbarguna@gmail.com : dipanchalAd :
রিফাত শরীফ হত্যা মামলার শিশু আসামী চন্দনের জামিন - dipanchalnews
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:২১ পূর্বাহ্ন
শীর্ষ সংবাদ :
বরগুনা পৌর পান-সুপারী ব্যবসায় সমবায় সমিতি লিঃ এর কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত বরগুনায় মহিলা পরিষদের উদ্যোগে নারী নির্যাতন প্রতিরোধপক্ষ ২০২২ অনুষ্ঠিত মানবতার আরেক নাম নব-গঠিত বরগুনা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ মানবতার আরেক নাম নব-গঠিত বরগুনা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ “ধ্রুবতারা” বরগুনা জেলা কমিটির সভাপতি সুমন সিকদার, সম্পাদক অর্পিতা বরগুনায় শ্রমিকলীগের উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টু এর ২য় মৃত্যু বার্ষিকী পালিত জেলা আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদককে শ্রমিক লীগের শুভেচ্ছা জেলা আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সভাপতিকে শ্রমিক লীগের শুভেচ্ছা প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ শ্রমিক লীগের উদ্যোগে বরগুনায় জেল হত্যা দিবস পালিত

রিফাত শরীফ হত্যা মামলার শিশু আসামী চন্দনের জামিন

  • আপলোডের সময় : বুধবার, ১ জুলাই, ২০২০
  • ৩৭৯ বার নিউজটি দেখা হয়েছে

জুলহাস (স্টাফ রিপোর্টার): বরগুনায় ২০১৯ সালের ২৬ জুন আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় প্রথম গ্রেফতারকৃত আসামী চন্দন(১৫) কে আজ জামিন দিয়েছেন শিশু আদালতের বিচারক মোঃ হাফিজুর রহমান।

রিফাত শরীফ হত্যা মামলা দায়েরের পরই ২৭ জুন চন্দনকে পৌরসভার আমতলা এলাকার বাসা থেকে আটক করে পুলিশ। এই মামলায় চন্দনই গ্রেফতারকৃত প্রথম আসামী।

আজ বরগুনা শিশু আদালতের আসামী পক্ষে জামিনের আবেদন করেন আ্যাডঃ নার্গিস পারভীন সুরমা। আসামী পক্ষের আইনজীবীকে জামিন শুনানীতে সহায়তা করেন আইনজীবী সমিতির সম্পাদক আ্যাডঃ মাহবুবুল বারী আসলাম।

রাস্ট্র পক্ষে জামিন আবেদনের বিরোধীতা করেন বিশেষ পিপি আ্যাডঃ মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল। উভয় পক্ষের শুনানী শেষে আদাদল আসামী চন্দনের জামিন মন্জ্ঞুর করেন। চন্দন বর্তমানে বরগুনা কারাগারে শিশু সংশোধনাগারে রযেছে।

এ নিয়ে রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ১৪ শিশু আসামীর মধ্য ৮ জন জামিন পেল। ইতোপূর্বে শিশু আসামী, মারুক, প্রিন্স মোল্লা,মারুফ মল্লিক, রাতুল,নাজমুল, আরিয়ান শ্রাবণ, ও তানভীরের জামিন দিয়েছে আদালত।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুণ :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর :
© All rights reserved © 2020 The Daily Dipanchal
Customized By BlogTheme