1. dipanchalbarguna@gmail.com : dipanchalAd :
বরগুনার আমতলীতে বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মানে চাঁদা দাবী ।। রাস্তা কেটে মালামাল নিতে চেয়ারম্যানের লোকজনের বাঁধা - dipanchalnews
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:৫০ অপরাহ্ন

বরগুনার আমতলীতে বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মানে চাঁদা দাবী ।। রাস্তা কেটে মালামাল নিতে চেয়ারম্যানের লোকজনের বাঁধা

  • আপলোডের সময় : বুধবার, ১৭ জুন, ২০২০
  • ৬৬৯ বার নিউজটি দেখা হয়েছে

আমতলী প্রতিনিধিঃ বরগুনার আমতলীতে হলদিয়া ইউনিয়নের বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নির্মান সামগ্রী নিতে বাধা দিয়ে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের লোকজন রাস্তা কেটে দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানায় এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পরশিয়া বেগম।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মান এর কাজ শুরু হলে গত ফেব্রুয়ারি মাসে মালামাল নেয়ার সময় ইতোপূর্বেও হলদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম মৃধার লোকজন বাধা দিলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন সরেজমিনে ঘটনা¯’ল পরিদর্শন করেন এবং মালামান পরিবহন নির্বিঘœ করেন। পরবর্তীতে গত ১৬/০৬/২০ তারিখ পুনরায় মালামাল পরিবহনের সময় চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম মৃধার লোক বলে পরিচিত উত্তর তক্তাবুনিয়া গ্রামের মৃত লতিফ রাড়ীর ছেলে মোঃ জুয়েল রাড়ী এবং দক্ষিণ তক্তাবুনিয়া গ্রামের মৃত মতি মোল্লার ছেলে মোঃ রেজাউল করিম মালামাল পরিবহনের দায়িত্বে থাকা লোকজনের কাছে ২,০০,০০০/ (দুই লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবী করে বলে অভিযোগকারী উল্লেখ করেছেন। মালামাল পরিবহনের দায়িত্বে থাকা লোকজন চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে চেয়ারম্যানের লোকজন রাস্তা কেটে দেয়। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নির্মান কাজ ও নির্মান সামগ্রী পরিবহন বন্ধ রয়েছে।
বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধার শিক্ষক অভিযোগকারী পরশিয়া বেগম বলেন, “চেয়ারম্যানের লোকজনের চাহিদা মতে চাঁদা না দেয়ায় রাস্তাা কেটে দেয়া হয়েছে। আমি প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।”
বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট এম এ কাদের মিয়ার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করে সুষ্ঠু সমাধান চান বলে জানিয়েছেন।
অভিযুক্ত চেয়ারম্যান মো. শহীদুল ইসলাম মৃধার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নাই।
আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শাহ আলম জানান, “অভিযোগ পেয়েছি, তদস্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।”

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুণ :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর :
© All rights reserved © 2020 The Daily Dipanchal
Customized By BlogTheme