1. dipanchalbarguna@gmail.com : dipanchalAd :
চাকরী বাতিল ও সরকারী টাকা ফেরতের দাবী, আমতলীতে জাল-জালিয়াতি করে চাকরী লাভ - dipanchalnews
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৬:৫৯ অপরাহ্ন

চাকরী বাতিল ও সরকারী টাকা ফেরতের দাবী, আমতলীতে জাল-জালিয়াতি করে চাকরী লাভ

  • আপলোডের সময় : বুধবার, ১৭ জুন, ২০২০
  • ১০৯১ বার নিউজটি দেখা হয়েছে

আমতলী প্রতিনিতিঃ বরগুনা জেলাধীন আমতলী মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক(মৌলভি) মোঃ জাহাঙ্গির আলমের বিরুদ্ধে অবৈধ নিয়োগের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগে তার চাকরী বাতিল এবং সরকারী বেতন-ভাতাদির টাকা সরকারী কোষাগারে জমার দাবী জানানো হয়েছে। আমতলী পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড সবুজবাগের বাসিন্দা মোঃ আবু বকর সিদ্দিক আমতলী উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর দায়েরকৃত ০৮ জুলাই ২০১৯ তারিখের এক অভিযোগ পত্রের বিবরনে জানা যায়, ০১ মে ২০০৬ তারিখ মোঃ জাহাঙ্গির আলম আমতলী মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক (মৌলভী)পদে চাকরী গ্রহনের পূর্বে পটুয়াখালীর পাঙ্গাশিয়া কামিল মাদ্রসায় ১৫ আগস্ট ১৯৯৩ থেকে ৩০ এপ্রিল ২০০৬ পর্যন্ত করণিক পদে চাকরী করতেন। দ্বিতীয়ত তার শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রে দাখিল ১৯৮২ তৃতীয় বিভাগ, আলিম ১৯৮৪ তৃতীয় বিভাগ এবং ফাজিল ও কামিল দ্বিতীয় বিভাগে উত্তির্ণ হন। ২টি তৃতীয় বিভাগ এবং ২টি দ্বিতীয় বিভাগ নিয়ে করণিক পদে চাকরী প্রাপ্তির সুযোগ থাকলেও ২০০৬ সালে সহকারী শিক্ষক পদে চাকরী প্রাপ্তির সুযোগ ছিল না। ২০০৩ সালের ২ এপ্রিল তারিখের স্মারক নং-শা:১১/৬(২)/২০০২/৩৪৭(১৩) প্রজ্ঞাপন মোতাবেক সরকার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন যে, “ এখন থেকে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষা জীবনে যে কোন একটি পরীক্ষায় একটি তৃতীয় বিভাগ প্রাপ্ত ব্যাক্তিগণও শিক্ষক হিসাবে নিয়োগ যোগ্য বিবেচিত হবেন এবং তারা এম.পি.ও প্রাপ্ত হবেন”।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, ঢাকা, ড. আয়েশা খাতুন, মহাপরিচালক-এর স্বাক্ষরিত, ২০০০ সালের ৩১ আগস্ট তারিখের স্মারক নং ২৬১৫৪/(৩০০০০) জিএ প্রজ্ঞাপন মোতাবেক সরকার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন যে, “ ৯ নং ক্রমিকে এসএসসি থেকে, স্নাতকোত্তর পর্যায় পর্যন্ত কোন ৩য় বিভাগধারীকে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ দেয়া যাবে না এবং তিনি এমপিও প্রাপ্তির জন্য বিবেচ্য হবেন না। সংশ্লিষ্ট শিক্ষক স্নাতক পর্যায়ে পাস কোর্সের ডিগ্রীধারী হলে তার মাষ্টার্স পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণী থাকতে হবে। ২য় শ্রেণীতে অনার্স ডিগ্রী থাকলে মাষ্টার্স-এ দ্বিতীয় শ্রেণী থাকতে পারে। পূর্বে এমপিও ভুক্ত ইনডেক্স নম্বরধারী শিক্ষকদের ক্ষেত্রে এ বিধান প্রযোজ্য হবে না”। এখন থেকে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষা জীবনে যে কোন একটি পরীক্ষায় একটি তৃতীয় বিভাগ প্রাপ্ত ব্যাক্তিগণও শিক্ষক হিসাবে নিয়োগ যোগ্য বিবেচিত হবেন এবং তারা এম.পি.ও প্রাপ্ত হবেন”।

কিন্তু জাহাঙ্গির আলমের এই প্রজ্ঞাপন জারির পর সহকারি শিক্ষক পদে নিয়োগ লাভের যোগ্যতা হারিয়ে তিনি অবৈধ পন্থা অবলম্বন করেন। পাঙ্গাশিয়া নেছারিয়া কামিল মাদ্রসায় এমপিও ফটোকপিতে জালিয়াতি করে CP কে AP বানিয়ে করণিকে পদকে সহকারি শিক্ষকের পদ দেখিয়ে এবং করণিকে স্কেলকে সহকারী শিক্ষকের স্কেল বানিয়ে আমতলী মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি এবং প্রধান শিক্ষকে ম্যানেজ করে ০১ মে ২০০৬ তারিখ সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ লাভ করেন। এই শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিগত দিনেও মহা-পরিচালক মা:ও উচ্চ শি: অধিদপ্তর, শিক্ষা সচিব, চেয়ারম্যান দুর্ণীতি দমন অধিদপ্তর, জেলা শিক্ষা অফিসার, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আরো বিভিন্ন দপ্তরে দরখাস্ত করা হয়েছে। কিন্ত প্রতি বারই তিনি টাকার বিনিময় অথবা রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় থেকে পার পেয়ে যাচ্ছেন। কর্তৃপক্ষ দেখেও যেন না দেখার ভান করে যাচ্ছেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগকারীদের অভিযোগ পাঙ্গাশিয়া
নেছারিয়া কামিল মাদ্রসায় এমপিও ফটোকপিতে জালিয়াতি করে করণিক পদকে সহকারি শিক্ষকের পদ দেখিয়ে এবং করণিকে স্কেলকে সহকারী শিক্ষকের স্কেল বানিয়ে এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ২০০০ সালের প্রজ্ঞাপন ও ২০০৩ সালের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ২টি প্রজ্ঞাপনকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে সরকারের কয়েক লাখ টাকা লুটপাট করে নিচ্ছে।
প্রধান শিক্ষক শাহ আলম কবিরের নিকট মোবাইলে জানা তিনি বলেন, করণিক থেকে সহকারী শিক্ষক পদে চাকরীর ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ডিজি মহোদয়ের এক নোটিশে প্রধান শিক্ষক হিসেবে আমাকে ও অভিযুক্ত সহকারী মৌলভি জাহাঙ্গীর আলমকে উক্ত কার্যলয়ে উপস্থিত হয়ে সাক্ষী দেই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুণ :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর :
© All rights reserved © 2020 The Daily Dipanchal
Customized By BlogTheme